Headlines News :
Home » » জকিগঞ্জে লাখো মানুষের অংশ গ্রহণে শেষ হলো আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (রহ.)’র ঈসালে সাওয়াব মাহফিল

জকিগঞ্জে লাখো মানুষের অংশ গ্রহণে শেষ হলো আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (রহ.)’র ঈসালে সাওয়াব মাহফিল

Written By zakigonj news on শনিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০১৬ | ৭:৪০ PM

স্টাফ রিপোর্টার
জকিগঞ্জে লাখো মানুষের অংশ গ্রহণে শেষ হলো উপমহাদেশের প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন ওলীয়ে কামিল শামসুল উলামা আল্লামা আব্দুল লতিফ চৌধুরী ফুলতলী (রহ.) এর ৯ম ঈসালে সাওয়াব মাহফিল। আজ ১৬ই জানুয়ারি শনিবার বাদ ফজর ফুলতলী ছাহেব বাড়ি সংলগ্ন বালাই হাওর মাঠে আখেরী মোনাজাতের মধ্যদিয়ে এবারের ঈসালে সাওয়াব মাহফিল শেষ হয়। গতকাল ১৫ জানুয়ারি শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় এতীমখানার হাজারো এতীমকে নিয়ে হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (রহ.)-এর মাজার জিয়ারতের মধ্য দিয়ে মাহফিলের কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর অুষ্ঠিত হয় খতমে কুরআন ও দালাইলুল খায়রাত শরীফের খতম। জুমআর পূর্বেই লোকে লোকারণ্য হয়ে উঠে বালাই হাওর। লাখো মুসল্লি নিয়ে বালাই হাওরে অনুষ্ঠিত হয় জুমআর নামায। যেদিকে চোখ যায় শুধু মুসল্লিদের সারি। নামায শেষে মাহফিলের মঞ্চে তাশরীফ আনেন হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (র.)-এর সুযোগ্য উত্তরসূরি উস্তাযুল উলামা ওয়াল মুহাদ্দিসীন, মুরশিদে বরহক হযরত আল্লামা ইমাদ উদ্দিন চৌধুরী বড় ছাহেব কিবলাহ ফুলতলী। খতমে খাজেগান ও দুআর পর মুরিদীন-মুহিব্বীনের উদ্দেশ্যে পেশ করেন অত্যন্ত
হৃদয়গ্রাহী বয়ান। এ সময় তিনি বলেন, আমরা মানুষ, সৃষ্টিগতভাবে অত্যন্ত দুর্বল। এর তুলনায় আমাদের উপর শয়তানের প্রভাব অত্যন্ত শক্তিশালী। সে আমাদের আমলকে বিনষ্ট করার জন্য আমলের মধ্যে রিয়া বা লোক দেখানোর মনোভাব সৃষ্টি করে ফেলে। এ থেকে আমাদের বাঁচতে হবে। দীন-দুঃখী মানুষের পাশে মাটির আসনে বসে তাদের খিদমত করতে হবে। সকল কাজ আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে করতে হবে। অন্তরে হুব্বে রাসূল পয়দা করতে হবে। যার অন্তরে রাসূলপ্রেমের আগুন আছে দুনিয়ার কোনো আগুন তাকে পোড়াতে পারে না। হযরত আবু মুসলিম খাওলানী (র.)-এর প্রমাণ। তিনি বলেন, একদল লোক জিহাদের নামে মুসলমান হত্যা করে। এটা আসলো কোত্থেকে? এটা তো বাতিলপন্থী খারিজীদের ধারা। তিনি বলেন, যে সব মানুষ তাবিঈন, আইম্মায়ে কেরাম, আউলিয়ায়ে কেরামকে গালি-গালাজ করে, তাদের প্রতি বিষবাক্য প্রয়োগ করে এদের থেকে দূরে থাকতে হবে। সতর্ক থাকতে হবে যেন আমরা বিভ্রান্তির শিকার না হই। কিছু লোক তরীকা-
তাসাউফের দাবী করে কিন্তু নামায পড়ে না। অথচ সকল ওলী নামাযের জন্য তাকীদ দিয়েছেন। চিশতিয়া, কাদরিয়া, নকশবন্দিয়া, মুজাদ্দিদিয়াসহ বিভিন্ন হক তরীকা আছে। এসব তরীকার যিকরের নিজস্ব রীতি-পদ্ধতি আছে। সিলসিলামতো যিকর করবেন। একে দুনিয়াবী স্বার্থসিদ্ধির উদ্দেশ্যে ব্যবহার করবেন না। কেননা এরূপ করলে ক্ষতিগ্রস্থ হবেন। বাংলাদেশ আন্জুমানে আল ইসলাহর সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ হুছামুদ্দীন চৌধুরী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাওলানা আহমদ হাসান চৌধুরী’র যৌথ পরিচালনায় মাহফিলে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসাইন, ইছামতি কামিল মাদরাসার সাবেক প্রিন্সিপাল শায়খুল হাদীস আল্লামা হবিবুর রহমান, উজানডিহির পীর ছাহেব মাওলানা সায়্যিদ মোস্তাক আহমদ আল মাদানী, ফুলতলী কামিল মাদরাসার সাবেক প্রিন্সিপাল আল্লামা নজমুদ্দীন চৌধুরী, দৈনিক ইনকিলাবের নির্বাহী সম্পাদক মাওলানা কবি রূহুল আমীন খান, মাওলানা শিহাব উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী, মুফতী মাওলানা গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী, সোবহানীঘাট কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা কমরুদ্দীন চৌধুরী, সাবেক এমপি আলহাজ শফিকুর রহমান চৌধুরী, বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহর মহাসচিব মাওলানা এ.কে.এম মনোওর আলী, ঢাকা নেছারিয়া কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা কাফীলুদ্দীন ছালেহী, মুফতী মাওলানা আবূ নছর জিহাদী, জালালপুর জালালিয়া কামিল মাদরাসার
প্রিন্সিপাল মাওলানা জ.উ.ম আব্দুল মুনঈম, ইকড়ছই সিনিয়র মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা ছমির উদ্দীন, সৎপুর কামিল মাদরাসার মুহাদ্দিছ মাওলানা ছালিক আহমদ, বুরাইয়া কামিল মাদÍাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা সিরাজুল ইসলাম ফারুকী, ঢাকা মহাখালী কামিল মাদরাসার মুহাদ্দিছ মাওলানা মাহবুবুর রহমান, জকিগঞ্জ সিনিয়র মাদরাসার সহকারী অধ্যাপক মাওলানা মোশাহিদ আহমদ কামালী, দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসার মুহাদ্দিছ মাওলানা বদরুজ্জামান রিয়াদ, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি ফখরুল ইসলাম ও ঢাকা জেলা লতিফিয়া কারী সোসাইটির সভাপতি মাওলানা আবু সাদেক মুহাঃ ইকবাল খন্দকার। মাহফিলে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভারতের উজানডিহির পীর ছাহেব মাওলানা সায়্যিদ জুনাইদ আহমদ আল মাদানী, আমরোটের পীর ছাহেব হযরত মাওলানা আব্দুল কুদ্দুছ, মাওলানা আব্দুশ শাকুর চৌধুরী ফুলতলী, জালালিয়া কামিল মাদরাসার সাবেক প্রিন্সিপাল মাওলানা শুয়াইবুর রহমান, নর্থইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের চেয়ারম্যান এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী, ইয়াকুবিয়া হিফযুল কুরআন বোর্ডের জেনারেল সেক্রেটারী হাফিয
মাওলানা ফখরুদ্দীন চৌধুরী, সুপ্রিম কোর্টের সহকারী এটর্নি জেনারেল আব্দুর রকিব মন্টু, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক ড. সৈয়দ শাহ এমরান, সৎপুর কামিল মাদরাসার সাবেক প্রিন্সিপাল মাওলানা শফিকুর রহমান, মৌলভীবাজার টাউন কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম সিদ্দিকী, ইছামতি কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মাশুক আহমদ, বাদেদেওরাইল ফুলতলী কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুর রহীম, রাখালগন্জ সিনিয়র মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা হবিবুর রহমান, জকিগঞ্জ সিনিয়র মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা নূরুল ইসলাম, বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা ছরওয়ারে জাহান, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিন্সিপাল মাওলানা মঈনুল ইসলাম পারভেজ, ঢাকা মহাখালী কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল ড. মাওলানা নজরুল ইসলাম খান আল মারূফ, সৎপুর কামিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল মাওলানা আবূ জাফর মুহাম্মদ নুমান, মাথিউউরা সিনিয়র মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আবদুল আলিম, ভারতের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ আজিজুর রহমান তালুকদার, মাওলানা মাহবূবুর রহমান, স্পেন আল ইসলাহর সভাপতি মাওলানা আসাদুজ্জামান রাজ্জাক, ইউকে আল ইসলাহ নেতা আলহাজ্ব ইসমাইল মিয়া, সিলেট জেলা ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব শেখ মকন
মিয়া, মাওলানা কাজী আলাউদ্দিন আহমদ প্রমূখ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার টাউন কামিল মাদরাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা শামসুল ইসলাম, বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক মাওলানা কুতবুল আলম, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাওলানা নজমুল হুদা খান, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মাওলানা মাহমুদ হাসান চৌধুরী, স্কুল অব এক্সেলেন্স-এর ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা গুফরান আহমদ চৌধুরী, মাওলানা মুজিবুর রহমান ভাদেশ্বরী, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা হাসান চৌধুরী গিলমান, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি আলমগীর হোসেন, মাওলানা আজির উদ্দিন পাশা, হাফিয নজীর আহমদ হেলাল, মাওলানা বেলাল আহমদ, ভাদেশ্বর আলিয়া মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা শুয়াইবুর রহমান, এলাহাবাদ আলিয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আবু তাহির হুসাইন, মাদারবাজার হাফিজিয়া আলিয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ ড. সৈয়দ শহীদ আহমদ বোগদাদী, ফেঞ্চুগন্্জ মুহাম্মদিয়া সিনিয়র মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা ফরিদ উদ্দীন আতহার, বিশ্বনাথ আলিয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা নুমান আহমদ, মাওলানা আব্দুস সোবহান জিহাদী, মাওলানা আব্দুল বারী জিহাদী, আলহাজ্ব তোরণ মিয়া, ইয়াকুবিয়া হিফযুল কুরআন বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ হাফিয আশিকুর রহমান, মৌলভীবাজার সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাফিয আলাউর রহমান টিপু, কুলাউড়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা ফজলুল হক খান শাহেদ, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা ইমাদ উদ্দিন নাসিরী, আল ইসলাহ নেতা মাওলানা আবু তাহির খালিদ, মাওলানা ফরিদ আহমদ হবিগঞ্জী, আলহাজ্ব শাহজাহান মিয়া, মাওলানা আলী আসগর খান, মাওলানা হেলালুদ্দীন সিরাজী, মাওলানা আনোয়ার হোসাইন, ড. মুর্শেদ আলম ছালেহী, মাওলানা আজিজুর রহমান প্রমূখ। প্রতিবারের ন্যায় এবারো ঈসালে সাওয়াব মাহফিলকে ঘিরে এলাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। মাহফিল মাঠে প্রবেশের পথে পথে পুলিশ ও সেচ্ছাসবকরা নিশ্চিন্দ্র নিরাপত্তা গড়ে তুলেন। এছাড়া ঈসালে সাওয়াব মাহফিলে আগতদের নিরাপত্তার স্বার্থে পুরো এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে আসা হয়।
Share this article :

0 মন্তব্য:

Speak up your mind

Tell us what you're thinking... !

ফেসবুক ফ্যান পেজ

 
Founder and Editor : Rahmat Ali Helali | Email | Mobile: 01715745222
25, Point View Shopping Complex (1st Floor, Amborkhana, Sylhet Website
Copyright © 2013. জকিগঞ্জ সংবাদ - All Rights Reserved
Template Design by Green Host BD Published by Zakigonj Sangbad