Headlines News :
Home » » জকিগঞ্জে নিজ মা’কে হত্যার দায় আদালতে স্বীকার করেছে পাষন্ড পূত্র!

জকিগঞ্জে নিজ মা’কে হত্যার দায় আদালতে স্বীকার করেছে পাষন্ড পূত্র!

Written By zakigonj news on সোমবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৫ | ৮:১৭ PM


স্টাফ রিপোর্টার
জকিগঞ্জে নিজ মা’কে হত্যার দায় স্বীকার করেছে পাষন্ড পূত্র মানই মিয়া উরফে মালু। সে উপজেলার বারঠাকুরী ইউনিয়নের খারিজা গ্রামের মৃত সোনাফর আলী পূত্র। সূত্র জানায়, গত ২৪ মার্চ মঙ্গলবার রাতে হতভাগা মা সোনাবান বিবি (৭০) কে চাঁপে পড়ে হত্যা করে ছেলে মালু। কিন্তু হত্যাকান্ডের পরদিন ছেলে মালু বাদী হয়ে জকিগঞ্জ থানায় চার জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হলেন, উপজেলার মুহাম্মদপুর গ্রামের নাজু আহমদ, তার ভাই শরীফ উদ্দিন, হাতিডহর গ্রামের সফিক উদ্দিন, তিরাশী গ্রামের চিকন আলী। মামলার এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, মা’কে নিয়ে পৈত্রিক বাড়ী খারিজা গ্রাম থেকে তিরাশী গ্রামের বসতবাড়ীতে যাচ্ছিলেন। সে বাড়ীর পুকুরপাড়ে রাত ১টায় পৌঁছামাত্র আসামীরা ধারালো অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে মালুকে আক্রমন করতে আসলে তার মা তাকে রক্ষা করতে গেলে আসামীরা সোনা বিবিকে উপুর্যপুরি কুপিয়ে জখম করে। পরদিন সকালে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তবে শেষ পর্যন্ত ঘটনার দীর্ঘ সাড়ে চার মাস পর জকিগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনার কিনারা করেছে। পুলিশ গত ১৭ আগস্ট সোমবার মামলার বাদী মানই মিয়া মলু-কে গ্রেফতার করে জকিগঞ্জ সিনিয়র চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করলে সে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করে। জবানবন্দিতে মলু জানায়, সে চাঁপে পরে তার মাকে হত্যা করেছে। পরে হাসিতলা গ্রামের জনৈক ব্যক্তির পরামর্শে কয়েকজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। স্থানীয়রা জানান, শুরু থেকেই এ মামলা নিয়ে রহস্যের সৃষ্ঠি হয়। কেননা রাত ১ টায় হতভাগা সোনাবান বিবিকে জখম করার পরদিন সকাল ৮টা পর্যন্ত পুকুর পাড়ে পড়ে থাকলেও তাকে উদ্ধারে কেউ এগিয়ে আসেনি কেন? এমনকি তার সাথে থাকা ছেলে মানই মিয়া মালু মাকে উদ্ধারে না এসে তার পৈত্রিক বাড়ী পাড়ি দিয়ে ৮ কিলোমিটার দুরে হাসিতলা গ্রামের বাছিত মিয়ার বাড়ীতে অবস্থান করায় সন্দেহের সৃষ্ঠি হয়। এছাড়া এ হামলা ও হত্যার বিষয়ে তিরাশী গ্রামসহ আশপাশের কেউই এ বিষয়ে কিছু না জানার ও কোন শোর চিৎকার না শুনাটাও সন্দেহকে আরোও ঘনিভূত করে। রাত ১টায় ঘটনা ঘটলেও পরদিন সকাল ৮টা পর্যন্ত সোনাবান বিবি কথা বলছিলেন। তিরাশী জামে মসজিদের ইমাম নেজাম উদ্দিন তখন জানিয়েছিলেন, মালুর স্ত্রী জুবেদা বেগম তাকে প্রথম ফোন করে বাড়ীর পাশে পরে থাকা এক অর্ধমৃত মহিলার কথা জানান। আর মালুর স্ত্রী জুবেদা বলছিলেন পার্শ্ববর্তী মসজিদে ফজরের নামাজে আসা মুসল্লিরা-ই তাকে ওই মহিলার (জুবেদা) খবর দেন। তাদের এহেন রহস্য ঘেরা কথা-বার্তায় শুরু থেকেই সন্দেহের তীর নিহত সোনাবান বিবির পরিবারের দিকে যাচ্ছিল। এনিয়ে স্থানীয় সংবাদকর্মীরাও পরদিন মামলার বাদীর কথা-বার্তা সন্দেহজনক বলে তুলে ধরেন। এ প্রসঙ্গে জকিগঞ্জ থানার ওসি সফিকুর রহমান খাঁন বলেন, পুলিশ অক্লান্ত পরিশ্রম করে এ হত্যা মামলার রহস্য উদ্ঘাটনে সক্ষম হয়েছে। মামলার বাদী আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিকালে নিজ মা’কে হত্যার কথা স্বীকার করেছে।
Share this article :

0 মন্তব্য:

Speak up your mind

Tell us what you're thinking... !

ফেসবুক ফ্যান পেজ

 
Founder and Editor : Rahmat Ali Helali | Email | Mobile: 01715745222
25, Point View Shopping Complex (1st Floor, Amborkhana, Sylhet Website
Copyright © 2013. জকিগঞ্জ সংবাদ - All Rights Reserved
Template Design by Green Host BD Published by Zakigonj Sangbad