Headlines News :
Home » » জকিগঞ্জে শিশু ধর্ষণ! আইনের কঠোর প্রয়োগ জরুরি

জকিগঞ্জে শিশু ধর্ষণ! আইনের কঠোর প্রয়োগ জরুরি

Written By zakigonj news on সোমবার, ২৩ মার্চ, ২০১৫ | ১২:৩৮ PM

জকিগঞ্জের বিরশ্রী ইউনিয়নের ডালুরপাড় গ্রামে এক নিরীহ সংখ্যালুঘু পরিবারের মেয়ে শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। পত্রপত্রিকা সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি ঢালুরপাড় গ্রামের মৃত রজত বিশ্বাসের ছেলে হিমন বিশ্বাস (২০) বাড়ির পাশে শিশুটিকে পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। শিশুটি বাড়িতে আসার পর তার পরনের কাপড়ে রক্ত দেখে শিশুটির মা কারণ জানতে চাইলে মেয়েটি ধর্ষণের বিষয়টি জানায়। শিশুটির কথা শুনে মা তাৎক্ষণিক বিষয়টি তার স্বামীকে জানালে তিনি এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদেরকে অবগত করেন। এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ তা শুনে আপোষে নিস্পত্তি করে দেওয়ার প্রতিশ্র“তি দিয়ে কালক্ষেপন করতে থাকেন। শেষ পর্যন্ত প্রায় সাপ্তাহখানেক পর শিশুটির রক্তক্ষরণ বেড়ে যাওয়ায় প্রথমে জকিগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে ও পরে সিলেট এম.এ.জি.ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে শিশুটি ভর্তি করেন। সংবাদে উল্লেখ করা হয় শিশুটির বয়স আট বছর ও সে বিপক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে। আমরা মনে করি, জকিগঞ্জের মতো একটি এলাকায় এহেন ন্যাক্কারজনক ঘটনা বেদনাদায়ক। কেননা একটা ৮ বছরের শিশু মূলত সম্পূর্ণ নিস্পাপও ফুলের মতো পবিত্র। অথচ পুরুষ নামের ওই নরপশু এ শিশুর ওপর যে পাশবিক নির্যাতন করছে তাতে মনে হয় পৃথিবী থেকে মানবতা, সুস্থতা মুছে যাচ্ছে। আমরা মনে করি, এসব জানোয়ারের তাণ্ডবে ক্ষত-বিক্ষত হচ্ছে সমাজ, লণ্ডভণ্ড হয়ে যাচ্ছে পরিবার, তছনছ হয়ে যাচ্ছে অনেকের জীবন। প্রকৃতপক্ষে প্রতিটি ধর্ষণ ভয়ঙ্কর, বিভৎস। কিন্তু কি আশ্চর্য, আজ সব ধর্ষণ শিরোনাম হয় না পত্রিকায় ! একটা প্রাপ্তবয়স্ক তরুনী যদি ধর্ষিত হয়, তাহলে সেটা আর বড় খবর না এখন। এসব হতেই পারে আমাদের সমাজে, ওসব আমাদের গা সওয়া হয়ে গেছে। তবে একজন অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে যদি এভাবে ধর্ষিত হয় তা আমাদের ‘বিবেক’ কে নাড়া দেয়। প্রশ্নজাগে আমাদের সমাজে মানুষ এতো ভয়ঙ্কর হয়ে যেতে পারে? একটি আট বছরের মেয়ের নারীত্বের কী রয়েছে? তাকেও কেন এভাবে শারীরিক আক্রমণের শিকার হতে হবে? আজও অনেক পরিবার কন্যাশিশুকে বোঝা মনে করে, কন্যাশিশুর শিক্ষার ব্যাপারে নেতিবাচক মনোভাব পোষণ করে। এভাবে যদি কন্যাশিশুরা ধর্ষণের শিকার হতে থাকে পরিবারগুলো কন্যাশিশুর উচ্চশিক্ষা থেকে স্বাবলম্বী হওয়ার বিষয়ে আর উৎসাহ পাবে না এবং এভাবেই নারীরা পিছিয়ে পড়বে। আমরা মনে করি, এ সকল ঘৃণ্য অপকর্মের লাগাম এখনই টেনে ধরতে হবে। বিশেষ করে জকিগঞ্জের মতো একটি উপজেলায় পুনরায় যেন এহেন ঘৃণ্য কাজ হতে না পারে প্রশাসনকে সে উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। আমারা জানতে পেরেছি গত ২৭ ফেব্র“য়ারি শুক্রবার সিলেট এম.এ.জি.ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি থেকে জকিগঞ্জ থানায় প্রেরিত স্মারক নং ৬০ তাং ২৩/০২/২০১৫ইং মূলে ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে এ ঘটনায় মামলা দায়ের করেছেন। আমাদের দাবী এ ঘটনায় জড়িত অপরাধীকে সহসা আইনের আওতায় এনে বিচারকার্য সম্পাদন করতে হবে। কেননা ধর্ষকদের সরকার কঠোর হস্তে দমন করতে না পারলে আগামীতে ধর্ষণের মাত্রা আরও বাড়তে থাকবে। দেশের বা সমাজের অস্থিত্বের বিষয় এ ঘটনা। এ ব্যাপারে পুলিশের ভূমিকা বেশি। তাদের তদন্ত রিপোর্টের উপর নিভর্র করছে অপরাধী বা ধর্ষকের শাস্তি। তাই এ ঘটনায় জকিগঞ্জ থানা পুলিশ জরুরী ভিত্তিতে অপরাধীকে আইনের আওতায় এনে একটি সুষ্ঠু, সুন্দর ও নিরপেক্ষ তদন্ত রিপোর্ট প্রদান করবেন বলে আমরা আশাবাদী।
Share this article :

0 মন্তব্য:

Speak up your mind

Tell us what you're thinking... !

ফেসবুক ফ্যান পেজ

 
Founder and Editor : Rahmat Ali Helali | Email | Mobile: 01715745222
25, Point View Shopping Complex (1st Floor, Amborkhana, Sylhet Website
Copyright © 2013. জকিগঞ্জ সংবাদ - All Rights Reserved
Template Design by Green Host BD Published by Zakigonj Sangbad