Headlines News :
Home » » জকিগঞ্জে ২০১৪ সালের আলোচিত ১৪ ঘটনা

জকিগঞ্জে ২০১৪ সালের আলোচিত ১৪ ঘটনা

Written By zakigonj news on সোমবার, ৫ জানুয়ারী, ২০১৫ | ১২:৩৮ AM

রহমত আলী হেলালী
অতিত হয়ে গেল ২০১৪ সাল। শুরু হয়েছে নতুন বছর ২০১৫। গত এক বছরে জকিগঞ্জের মাটিতে ঘটে যাওয়া কিছু আলোচিত বিষয় পিছনে ফিরে দেখা যাক। ২০১৪ সালে জকিগঞ্জ উপজেলা জুড়ে ছিল নানা অস্তিরতা। বছর জুড়ে বড় ধরনের নাড়া দেওয়া ১৪টি ঘটনার মধ্যে ছিল জকিগঞ্জ সেটেলমেন্ট অফিসের হয়রানী, জকিগঞ্জ সরকারী হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স পুড়ানো, নির্বাচনী আসনের বাইরে থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় এমপি নির্বাচিত হওয়া, উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের পরাজয়, জকিগঞ্জ হয়ে সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর ভারত সফর, কালবৈশাখী ঝড়ের তান্ডব, উপজেলা প্রশাসনে দ্বন্দ্ব, জকিগঞ্জ পৌরসভা ও বারহাল ইউপি উপ-নির্বাচন, পিআইও ও পারুল ইস্যু, জনতার হাতে পুলিশ আটকের ঘটনা, জকিগঞ্জ-শেওলা সড়ক, আওয়ামীলীগ-বিএনপির কমিটি গঠন, এক ট্রাক ফেনসিডিল আটক, জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক বিষয়। ২০১৪ সালের পত্রপত্রিকা ঘেটে এই উল্লেখিত ১৪টি ঘটনাই আলোচিত বলে দেখা যায়। এছাড়াও ২০১৪ সালে আলোচিত ঘটনার মধ্যে ছিল শিক্ষক আব্দুল করিম হত্যাকান্ডসহ বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ড, মেয়র আনোয়ার হোসেন সোনাউল্লাহ’সহ বিশিষ্টজনদের মৃত্যু, সড়ক দূর্ঘটনাসহ বিভিন্ন দূর্ঘটনা জনিত কারণে মৃত্যু। তবে এনিয়ে পৃথক পৃথক ভাবে প্রতিবেদন তৈরী করায় আজকের আয়োজনে পুনরায় উল্লেখ করা হয়নি। নিন্মে ২০১৪ সালের আলোচিত ১৪টি ঘটনা তুলে ধরা হলো।
জকিগঞ্জ সেটেলমেন্ট অফিস :
জকিগঞ্জে ১০১৩ সাল থেকে শুরু করে ২০১৪ সালের পুরোটা সময় আলোচিত ছিল সেটেলমেন্ট অফিস। এ অফিসকে ঘিরে কেউ কেউ রাতারাতি আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ হলেও কেউ বসেছেন পথে। কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা আর দালালদের দ্বারা হয়রানীর শিকার হয়েছেন হাজার হাজার সাধারন মানুষ। নিজের সম্পদ হারিয়ে অনেকের আহাজারি ছিল চোঁখে পড়ার মতো। হয়রানীর শিকার হয়ে উপজেলার হাতিডহর গ্রামের মৃত মোশাহিদ আলীর ছেলে শরীফ উদ্দিন (৪৫) সেটেলমেন্ট অফিসের সামনে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। সেটেলমেন্ট অফিসের সার্ভেয়ার সরেজমিন তদন্তে গেলে হত্যাকান্ডের মতো ঘটনাও ঘটে কয়েকটি। এনিয়ে প্রতিনিয়ত মারামারি ঘটনা ছিল চোঁখে পড়ার মতো। কর্মকর্তা, কর্মচারী ও দালালদের দুর্নীতির কারণে মিছিল সমাবেশ করা হয়। সেটেলমেন্ট অফিসে দু’পক্ষের মারামারি আপোষ করতে গিয়ে জেল কাটতে হয় উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক ফারুক আহমদ ও ছাত্রলীগ নেতা আনোয়ারকে। সব মিলিয়ে গত পুরো একটি বছর ছিল সেটেলমেন্ট অফিস নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। 
আগুনে পুড়লো জকিগঞ্জে অ্যাম্বুলেন্স :
২০১৩ সালের ২৫ নভেম্বর দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয় আওয়ামীলীগ সরকার। অপরদিকে ক্ষমতাসীন দলের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন বয়কট করে তা প্রতিহতের ডাক দেয় বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট। এমনি এক কঠিন পরিস্থিতিতে শুরু হয় ২০১৪ সাল। সব ক’টি কর্মসূচী পালনে ব্যার্থ হয়ে বিরোধী জোট বছরের শুরুতে কঠিন কর্মসূচী ঘোষনা করলে বিএনপি-জামায়াতের কর্মীরা জ্বালাও পুড়াও শুরু করে। এরই অংশ হিসেবে ৪ জানুয়ারী শনিবার (নির্বাচনে আগের দিন) রাত সোয়া দশটায় জকিগঞ্জ সরকারী হাসপাতালের রোগী বহনকারী একমাত্র অ্যাম্বলেন্সটি আগুনে পুড়িয়ে দেয় নাশকতাকারীরা। এ সময় আহত হন অ্যাম্বুলেন্স চালক  লিটন মিয়া (৩৪)। পুড়িয়ে যাওয়ায় অ্যাম্বুলেন্সটির পরিবর্তে আজও হাসপাতালে কোন অ্যাম্বুলেন্স দেয়া হয়নি।
বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় এমপি নির্বাচিত :
জকিগঞ্জের ইতিহাসে প্রথম এ বছরের ৫ জানুয়ারী কোন ব্যক্তি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় এমপি হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আদালতের নির্দেশে সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা উঠিয়ে অনির্বাচিত ব্যক্তি বা সরকারের পরিবর্তে নির্বাচিত দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করার ব্যবস্থা করা হয়। এরপর গঠন করা হয় নির্বাচনকালীন সরকার। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদকে নিয়ে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করা হলেও এর কয়েকদিন পর থেকেই এরশাদ ঘোষণা দেন সব দল না এলে তিনি নির্বাচনে যাবেন না। এক পর্যায়ে নির্বাচনে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় রওশন এরশাদের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি। এ অবস্থায় আওয়ামী লীগসহ অন্যান্য দল সমঝোতার ভিত্তিতে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে। এতে সিলেট-৫ (জকিগঞ্জ-কানাইঘাট) আসন থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় এমপি নির্বাচিত হন পার্শ্ববর্তী বিয়ানীবাজার উপজেলার বাসিন্দা জাপা নেতা আলহাজ্ব সেলিম উদ্দিন।
উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের পরাজয় :
২০১৪ সালের ১৯ ফেব্র“য়ারী জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আলোচিত এ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের ভরাডুবি হয়। চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইাস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থীরা পরাজিত হয়েছেন। এখানে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হন বিএনপি নেতা ইকবাল আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যা পদে জামায়াত নেতা গোলাম রোকবানী চৌধুরী জাবেদ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মহিলাদল নেত্রী ইয়াহিয়া বেগম নির্বাচিত হন। এর আগের নির্বাচনে এ উপজেলার চেয়ারম্যান ছিলেন জাপা নেতা শাব্বীর আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন আওয়ামীলীগ নেতা মোস্তাকিম হায়দার ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন মহিলালীগ নেত্রী সাজনা সুলতানা হক চৌধুরী।
জকিগঞ্জে আলোচিত সমাজকল্যাণ মন্ত্রী :
জকিগঞ্জ কাস্টমস দিয়ে ২০১৪ সালের ৯ মার্চ ভারত সফরে যান সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী। মন্ত্রীর আগমনে প্রশাসনের কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ শত শত লোক জড়ো হন জকিগঞ্জ কাস্টমস ঘাটে। এ সময় তিনি প্রকাশ্যে সিগারেট খেয়ে ব্যাপক আলোচনায় আসেন। পরে পাসপোর্টবিহীন সঙ্গীদের নিয়ে ভারতে প্রবেশ করতে চাইলে ভারতের আসাম রাজ্যের করিমগঞ্জ টাউন কালীবাড়ি রোডের ইমিগ্রেশন সেন্টারে আটকা পড়েন। পরে মন্ত্রীর সঙ্গে থাকা চারজনকে ফিরিয়ে দেয় ভারতীয় ইমিগ্রেশন সেন্টার। বিষয়টি নিয়ে জকিগঞ্জে তখন ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা হয়। ভারতীয় মিডিয়াও বিষয়টি ফলাও করে প্রকাশ করে।
কালবৈশাখী ঝড়ের তান্ডব :
জকিগঞ্জে ২০১৪ সালের ১৭ এপ্রিল রাতে প্রচন্ড কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যায়। ঝড়ের তান্ডবে লন্ডভন্ড হয়ে যায় উপজেলার প্রত্যান্ত এলাকা। বিধ্বস্ত হয়েছে শতশত ঘরবাড়ি। উপড়ে পড়ে কয়েক হাজার গাছ পালা। আবহাওয়া দফতর সেই ভয়াবহ ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ রেকর্ড করে ঘন্টায় ৮২ কিলোমিটার। ভয়াবহ এই কালবৈশাখী ঝড়ে বিদ্যুতের লাইন ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে প্রায় ১৫ দিনেরও বেশী সময় উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম ছিল বিদ্যুতহীন। বাংলা বছরের শুরুতে এমন ঘুর্নিঝড়ে আতংকিত হয়ে পড়েন এলাকার সাধারন মানুষ। বিষয়টি তখন উপজেলাব্যাপী বেশ আলোচিত ছিল।
উপজেলা প্রশাসনে দ্বন্দ্ব :
জকিগঞ্জে ২০১৪ সালে বড় ধরণের দু’টি বির্তক সৃষ্ঠি করে উপজেলা প্রশাসন। গত বছরের ২ জুলাই   জকিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম আকতারুজ্জামানকে ডেকে নিয়ে জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আকবর হোসেন বিদ্যুতের লোডশেডিং সম্পর্কে তথ্য জানাকে কেন্দ্র করে জকিগঞ্জে আদালত ও প্রশাসন মুখোমুখি অবস্থান নেয়। এছাড়া বছরের শেষ দিকে ১১ ডিসেম্বর উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদের বক্তব্যকে কেন্দ্র করে অফিসার ও চেয়ারম্যানদের সভা বয়কট ছিল বেশ আলোচিত। বিষয় দু’টি নিয়ে সচেতন মহল থেকে শুরু করে সাধারন মানুষের মাঝে নানা আলোচনা সমালোচনা শুনা যায়।
জকিগঞ্জ পৌরসভা ও বারহাল ইউপি উপ-নির্বাচন :
জকিগঞ্জে ২০১৪ সালে পৌরসভা ও বারহাল ইউনিনে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ দু’টি নির্বাচনকে ঘিরে উপজেলাব্যাপী বেশ আলোচনার সৃষ্ঠি করে। পৌরসভার মেয়র আনোয়ার হোসেন সুনাউল্লাহ’র মৃত্যুতে ও বারহাল ইউপি চেয়ারম্যান তালুকদার মিছবাহ জামান আদালত কর্তৃক সাজার কারণে এ দু’টি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। পৌরসভা নির্বাচনে অতিতে আওয়ামীলীগ-বিএনপি নিজেদের প্রার্থী দিলেও এবারের নির্বাচনে উভয় দল প্রার্থী না দেওয়ায় বেশ আলোচনার সৃষ্ঠি করে। এছাড়া বারহাল ইউনিয়নে জামায়াত প্রার্থীর বিপূল ভোটে বিজয়ী হওয়ার বিষয়টিও ছিল বেশ আলোচিত।
পিআইও ও পারুল ইস্যু :
জকিগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া ও তার বাসার কাজের মেয়ে পুরুল নিখোঁজ নিয়ে বেশ আলোচিত ছিল ২০১৪ সাল। এনিয়ে গত বছরের ৭ জুলাই জকিগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি অপহরণ মামলা করা হলে প্রায় দেড় মাস পলাতক থাকেন পিআইও শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া। আবার বছরের শেষ দিকে পারুলের সন্ধান পাওয়াকে কেন্দ্র করে বেশ আলোচনা জমে উঠে।
জনতার হাতে পুলিশ আটক :
জকিগঞ্জে কালিগঞ্জ বাজারে ২০১৪ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর নিরীহ ব্যক্তিকে আটক করতে গিয়ে জনতার হাতে আটকা পড়েন পুলিশ। পরে জকিগঞ্জ থানার তৎকালীন ওসি জামশেদ আলম ও স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে ক্ষমা চেয়ে মুক্ত হয় পুলিশ। বিষয়টি নিয়ে তখন বেশ কিছুদিন ব্যাপক আলোচনা ও সমালোচনা হয়।
জকিগঞ্জ-শেওলা সড়ক :
জকিগঞ্জ-শেওলা সড়ক ২০১৪ সালের বেশীর ভাগ সময় মানুষের মুখে আলোচিত ছিল। দীর্ঘদিন থেকে সড়কটির সংস্কার না হওয়ায় চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়ে। এনিয়ে এলাকাবাসী ও পরিবহন মালিক সমিতি ব্যাপক আন্দোলন করে। অবশ্য বছরের শেষ দিকে সড়কটির সংস্কার কাজ শুরু হয়।
আওয়ামীলীগ-বিএনপি :
জকিগঞ্জে ২০১৪ সালে আওয়ামীলীগ ও বিএনপিতে নতুন মেরুকরণের সৃষ্ঠি হয়। আওয়ামীলীগের বিবাদমান দু’টি গ্র“পের মধ্যে সাবেক এমপি হাফিজ আহমদ মজুমদার গ্র“প সুবিধাজনক অবস্থানে চলে আসে। একই বলয় থেকে লোকমান উদ্দিন চৌধুরীকে আহবায়ক ও বীরমুক্তিযোদ্ধা মোস্তাকিম হায়দারকে সাচিবিক দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম আহবায়ক করা হয়। একই সাথে দীর্ঘদিন থেকে উপজেলা বিএনপিতে কোণঠাসা উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদকে উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ও এড. কাওছার রশীদকে পৌরসভার আহবায়ক করায় গ্র“পটি চাঙ্গ হয়ে উঠে। বিষয়টি নিয়ে জকিগঞ্জের রাজনৈতিক অঙ্গনে বেশ আলোচনার সৃষ্ঠি করে। এছাড়া আওয়ামীলীগ ও বিএনপির বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন কমিটি গঠন ছিল বেশ আলোচিত। বছরের শেষ মুহুর্তে উপজেলা ও পৌর বিএনপি সম্মেলন করে কমিটি গঠন করলেও এখন পর্যন্ত ইউনিয়ন কমিটির সম্মেলন শেষ করতে পারেনি আওয়ামীলীগ।
এক ট্রাক ফেনসিডিল আটক :
সীমান্ত জনপদ হিসেবে জকিগঞ্জ উপজেলা ফেনসিডিল আমদানীর জন্য বিখ্যাত এমনটাই শুনা যায় মানুষের মুখে মুখে। যার জ্বলন্ত প্রমাণ হিসেবে গত বছরের ৩০ আগস্ট উপজেলার শাহবাগ এলাকা থেকে এক ট্রাক ফেন্সিডিল আটক করে পুলিশ। ৭শ বোতল ফেন্সিডিলের এই বিশাল বহর আটকের পর এলাকায় বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয়।
জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক বিষয়ে উত্তপ্ত জকিগঞ্জ : 
জকিগঞ্জ ২০১৪ সালের বেশ কিছুদিন জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক ইস্যূতে উত্তপ্ত ছিল। ইসরাইল কৃর্তক ফিলিস্তিনে গণহত্যা ও ডাক-টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী ইসলামের অন্যতম রুকন পবিত্র হজ্ব, মহানবী (সঃ) ও দাওয়াতে তাবলীগ সম্পর্কে কটুক্তিকারী করায় এমনটি হয়েছে। পৃথক এ দু’টি ইস্যুতে বছরের বেশ কয়েক মাস পুরো উপজেলা আলোচিত ছিল। এনিয়ে পৃথক পৃথক ভাবে মিছিল সমাবেশ করে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সমাজিক সংগঠন ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান।
Share this article :

0 মন্তব্য:

Speak up your mind

Tell us what you're thinking... !

ফেসবুক ফ্যান পেজ

 
Founder and Editor : Rahmat Ali Helali | Email | Mobile: 01715745222
25, Point View Shopping Complex (1st Floor, Amborkhana, Sylhet Website
Copyright © 2013. জকিগঞ্জ সংবাদ - All Rights Reserved
Template Design by Green Host BD Published by Zakigonj Sangbad