Headlines News :
Home » » স্বাগত বাংলা নববর্ষ-১৪২১

স্বাগত বাংলা নববর্ষ-১৪২১

Written By zakigonj news on সোমবার, ১৪ এপ্রিল, ২০১৪ | ২:৩১ AM

‘মুছে যাক গ¬ানি, ঘুচে যাক জরা/ অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা।’ সকল না পাওয়ার বেদনাকে ধুয়ে মুছে, আকাশÑবাতাস ও প্রকৃতিকে অগ্নিস্নানে সূচি করে তুলতেই আবার এসেছে পহেলা বৈশাখ। আর একটা রাত পোহালেই আর একটি নতুন বাংলা সালের শুরু। শুভ নববর্ষ। স্বাগত ১৪২১। নতুন বছরের প্রথম দিনটি চিরায়ত আনন্দ-উদ্দীপনা আর বর্ণাঢ্য উৎসবেরর মধ্য দিয়ে হাজির হবে প্রতিটি বাঙালির হৃদয়ে। সেই নব প্রভাতে বাঙালি জাতির কায়মনো প্রার্থনাÑ যাকিছু ক্লেদ, গ¬ানি, যা কিছু জীর্ণ-শীর্ণ-বিদীর্ণ,যা কিছু পুরাতন জরাগ্রস্থ-সব বৈশাখের রুদ্র দহনে পুড়ে অঙ্গার হয়ে যাক।  ‘প্রভাতসূর্য, এসেছে রুদ্রসাজে/ দুঃখের মাঝে তোমারি তূর্য বাজে/ অরুণবহ্নি জ্বালাও চিত্তমাঝে, মৃত্যুর হোক লয়।’ আগামীকাল সোমবার নতুন স্বপ্ন, উদ্যম আর প্রত্যাশার আবির ছড়ানো বাঙালি জাতির সবচেয়ে বড় উৎসব পহেলা বৈশাখ।  কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গানের ভাষায়Ñ ’এসো, এসো হে বৈশাখ,এসো এসো।’  গ্রীষ্মের দাবদাহ এড়িয়ে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মাঠ-ঘাট, পথেÑপ্রান্তরে ঢল নামবে লাখো উচ্ছসিত জনতার। আমাদের জাতিসত্তার মৌলিক ও অনন্য পরিচয় এবং বাঙালির প্রভূত রূপায়ণ ও রাষ্ট্রীয় পরিচয়ের অমোঘ উপাদান এই পয়লা বৈশাখ। দেশের মূল স্তম্ভ কৃষক সমাজ আজও বাংলা বর্ষপঞ্জি অনুসরণ করে, ফসল রোপন ও ঘরে তোলার পালাও চলে সেই পঞ্জিকা অনুসারে। ফসলি সাল গণনার জন্য একদা যে বাংলা সনের উৎপত্তি তা সুদীর্ঘকাল ধরে শহর-বন্দর, গ্রাম থেকে প্রত্যন্ত অঞ্চলে এদেশের মানুষের হৃদয়ে নিজস্ব সংস্কৃতি হিসেবে শক্ত আসন গেড়ে বসেছে। বাংলা নববর্ষে ব্যবসায়ীদের ‘হালখাতা’ রীতি এখনও এদেশের নিজস্ব সংস্কৃতির আমেজ নিয়ে টিকে রয়েছে। খেরোখাতায় পুরাতন হিসেব মিটিয়ে নতুন বছরে নতুন করে সবকিছু শুরু করার জন্য এদিন ব্যবসায়ীরা সংশ্লিষ্টদের দাওয়াত দিয়ে এখনও মিষ্টিমুখ করান। পহেলা বৈশাখ উৎসবে মেতে ওঠার উপসর্গ খুঁজে ফেরা বাঙালিদের জন্য নারী-পুরুষ-শিশু, ধর্ম, বর্ণ, গোত্র নির্বিশেষে জাতীয়ভাবে আনন্দ-উল্লাসে মেতে ওঠার দিন। শোভাযাত্রা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মেলা এবং রং-বেরঙের নারী-পুরুষের পোষাক এবং সজ্জায় বর্ণিল হয়ে উঠবে গোটা দেশ। কাকডাকা ভোর থেকেই এ দেশের পথে পথে বাঙালি সংস্কৃতি লালনকারী আনন্দপিপাসু তরুন প্রজম্মের ঢল নামবে । পরিধেয় বস্ত্রেও থাকবে বৈশাখী উৎসবের লাল-সাদার বাহারি নক্সার পোশাক। শাড়ি, সালোয়ারÑ কামিজ ও ফতুয়া পরে, পায়ে আলতা, হাতে মেহেদী আর খোঁপায় তাজা ফুলের মালা জড়িয়ে বঙ্গ ললনারা রাজপথে নেমে আসবেন। পুরুষের পরিধানে থাকবে পাঞ্জাবী ও ফতুয়াসহ চিরায়ত বাঙালি পোশাক। শিশুরাও এদিন বাবাÑমা’র হাত ধরে আসবে পুরো বাঙালি সাজে সেজে। প্রায় সকলের, বিশেষ করে শিশু, তরুণÑ তরুণীদের কপালে, গালে, বাহুতে আঁকা থাকবে বাঙালী সংস্কৃতির আলপনা। রঙ-বেরঙের মুখোশ পরে ঢাক, ঢোল, একতারা হাতে নানা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে রাস্তায় নেমে পড়বেন দেশবাসী। দেশের অভিজাত রেস্টুরেন্টের পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ রেস্টুরেন্টে থাকবে ইলিশÑপান্তার আয়োজন। বাসাবাড়িতে তৈরি হবে বাঙালি খাবারÑইলিশ মাছ ভাজা, শুটকি, বেগুন, ডাল, নানা পদের ভর্তা, ইলিশ ভাজা ও ষর্ষে ইলিশসহ আরো কত কি। বিভিন্ন এতিমখানা, কারাগার, সংশোধন কেন্দ্র, হোষ্টেল এবং হাসপাতালে উন্নত খাবার পরিবেশন ছাড়াও রেডিও টিভিতে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা, সংবাদপত্রে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হবে নববর্ষকে ঘিরে। আমাদের প্রত্যাশা এবার পয়লা বৈশাখ পালিত হবে অত্যান্ত শান্তিপূর্ণভাবে। বাঙ্গালিরা বাংলা নব বর্ষকে স্বাগত জানাবে যথাযোগ্য মর্যাদায়। তাই আসুন সকলে মিলে আগামীর বাংলাদেশ গড়তে ঐক্যবদ্ধ হই। বিশ্ববাসীকে দেখিয়ে দেই বাঙ্গালী জাতি শান্তি প্রিয় জাতি। 
Share this article :

0 মন্তব্য:

Speak up your mind

Tell us what you're thinking... !

ফেসবুক ফ্যান পেজ

 
Founder and Editor : Rahmat Ali Helali | Email | Mobile: 01715745222
25, Point View Shopping Complex (1st Floor, Amborkhana, Sylhet Website
Copyright © 2013. জকিগঞ্জ সংবাদ - All Rights Reserved
Template Design by Green Host BD Published by Zakigonj Sangbad